Kick out foreign students at end of course

Business Secretary Sajid Javid

নতুন আইন : কোর্স সম্পন্ন হবার পর নন ইইউ স্টুডেন্টদের ইউকে ত্যাগে বাধ্য করা হবে

 বিদেশী স্টুডেন্টদের জন্য নতুন খড়গ নিয়ে আসছে কনজারভেটিভ সরকার। এবার সরাসরি টার্গেট হলেন ইউরোপিয় ইউনিয়নের বাইরের দেশের স্টুডেন্টরা। নন ইইউ স্টুডেন্টদের জন্য আগামী সপ্তাহেই খুব কড়াকড়ি করে আইন নিয়ে আসা হবে বলে জানিয়েছেন হোম সেক্রেটারী তেরেসা মে। নতুন আইনের অধিনে কোর্স শেষ হবার পর বিদেশী স্টুডেন্টদের স্ব স্ব দেশে ফিরে যেতে বাধ্য করা হবে। একই সঙ্গে কোর্স শেষ হবার পর ইউকেতে নন ইইউ স্টুডেন্টদের কাজের উপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হবে। এছাড়া কোর্স শেষে ইউকেতে কাজ করতে হলে স্ব স্ব দেশে ফিরে গিয়ে ওয়ার্কিং ভিসার জন্য আবেদন করতে হবে বলে ঘোষণা দিয়েছেন হোম সেক্রেটারী তেরেসা মে। ইমিগ্রেশন সমস্যা সমাধানে নতুন এ আইন ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের বাইরের সব দেশের স্টুডেন্টের ক্ষেত্রে কার্যকর হবে বলে জানিয়েছেন ইমিগ্রেশন মিনিষ্টার জ্যামস ব্রোকেন শায়ার। ভিসা কলেজগুলোকে শায়েস্তা করতেই এমন আইন নিয়ে আসা হচ্ছে বলে জানান তিনি।
হোম অফিস জানিয়েছে, গত এক বছরে প্রায় ১শ ২১ হাজার নন ইইউ স্টুডেন্ট ইউকেতে প্রবেশ করেছেন। এর মধ্যে মাত্র ৫১ হাজার দেশে ফিরে গেছেন। নেট ৭০ হাজার এখনো রয়ে গেছেন। ২০২০ সালের ভেতরে ইউকেতে নন ইইউ স্টুডেন্টের প্রবেশের সংখ্যা বছরে ৬ শতাংশ বাড়বে বলেও ধারণা করছে সরকার। কোয়ালিশন সরকারের আমলে প্রায় ৮৭০ বোগাস কলেজের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়েছেন হোম সেক্রেটারী তেরেসা মে। তখন কোয়ালিশনের শরীক দল হিসেবে লিবডেম বিভিন্ন ক্ষেত্রে বাধা দিলেও এবার এককভাবে ক্ষমতায় এসে টোরি নন ইইউ স্টুডেন্টদের ক্ষেত্রে আরো কঠোর হচ্ছে। নতুন আইনে স্টুডেন্ট ভিসা নিয়ে নন ইইউ থেকে আসা স্টুডেন্টরা ইউকেতে কাজের অধিকার পাবেন না। এমন কি কোর্স শেষ হবার পর ইউকেতে অবস্থান করে ভিসা এক্সটেনশনের আবেদনের সুযোগও দেয়া হবে না তাদের। নতুন আইনে তাদের ইউকেতে অবস্থানের সময় সীমা দু বছরের মধ্যে নিয়ে আসা হবে বলে জানিয়েছেন ইমিগ্রেশন মিনিষ্টার জেমস ব্রোকেনশায়ার। আগামী সপ্তাহে নন ইইউ স্টুডেন্টদের ভিসা নিয়ন্ত্রণের নতুন আইন ঘোষণা করা হবে বলে জানিয়েছেন তিনি। গত শুক্রবারেই নন ইইউ স্টুডেন্টদের উপর কড়া নজরধারী রেখে নতুন ইমিগ্রেশন আইনের আশ্বাস দিয়েছিলেন বিজনেস সেক্রেটারী সাজিদ জাভিদ।
 
Top